স্বপন রায়-এর কবিতা

Spread This
Swapan Roy

স্বপন রায়

অপেক্ষা 

১.
পাখিটা দূরের, দূরত্বটা আঁকা
তার নিয়তচাপা ডাক ‘কোপাই’-এর উপর কাঁপিয়ে ছেড়ে দিলে যেমন হয়
ডানা ঝাপ্টালো সেরকমই
মনে হয় এবার আসবে
মা, বাচ্চাটার কাছে, মায়ের নাম কিচিরমিচির
আঁকা সেই পাখির চেয়েও জ্যান্ত
দূরনত
আমি শুধু একটা ঢিলই মেরেছিলাম ‘কোপাই’-এর জলে, হে রবীন্দ্রনাথ

২.

আমি সামান্য বলি, তুমি অসামান্যে ওড়ো
দূরে মেঘ জমার আয়োজনে সামান্যপ্রতিম রোদ পড়ে
মনে হয় একটা ঠিকানা
ডিপো
হারিয়ে যাওয়া বাসের হর্ণকে ভুল করে ভাবা কেঁদে ওঠার কায়দা
আবার বলি
আরেকবার ওড়ো, বিকেলে এবার যদি কিছু হয়
সামান্য অসামান্য কিছু
এই যেমন তুমি হেঁটে যাচ্ছ আর আমি আলগা কাকতালীয় শিস দিচ্ছি

৩.

দাগ ছিল
দাগে শেরিশেরি ধুকপুক
হাস্কি ফলের বুকে ছিল বিকেলফেরত আস্কারা
জানলায় রোদবিহান আলো

জীপ টায়ার পরছে, কবেকার বটুয়া যাচ্ছে পানের রন্ধ্রে, নাকি কিছু পরছো বলে
শব্দটা
শব্দরা
গমের রং তো কবে থেকেই নিবাসী রিয়ার শীতে শীতে বাহারী উলেন
বাইরে এলাম, কেউ নেই
হাওয়া বইছে, সিরসির যত আপেলমোহিত হাওয়া
কফি
উপরে কী যেন আঁকা, রিয়া নয়, রিয়া এসব পছন্দ করেনা
রিয়া কী আমাকেও…

৪.

জল এক লীয়মানতার

পড়ে
জমে

দেখা হয় বালি’তে বালুকা
অস্তে কহারা কাহারা বলে নেমে যাওয়া লিখিতবেলার পাল্কি
জমে
পড়ে
দেখা হয় যারা নামে যারা যারা অসহায়

সোহিনীও ডাকে কিভাবে যেন সোহিনীকেই..