স্বদেশ মিশ্র-র কবিতা

Spread This
Swadesh Mishra

স্বদেশ মিশ্র 

আজ এখানেই

বিকেল মানে হাঁটতে যাওয়া ধু ধু
পালকের সংসারে মাথা রেখে
শুয়ে পড়া অযথাবিহ্বল
আনন্দে মাখামাখি
শিহরণ জল
হ্রদের বুক ছুঁয়ে 
ভাসানো কুয়াশা
নির্জন ঋতুকাল
হেমন্ত ডানা বাঁধে
গোধুলীপ্রবাসে 
উদগত এসো
উদগীত হই 
আজ এখানেই
রাগাশ্রয়ে
বনতলে হংসধ্বনিময়
চেতনার ধর্ম এই
স্নায়বিক
কিছু কিছু
অস্ফুট
বুনে
বুনে
ফেলা

কি যেন কী খুঁজছো তুমি

কি যেন কী খুঁজছো তুমি
নুড়িপাথর অকালবেলায়
চুলের মধ্যে জড়িয়ে যাচ্ছে
একই হাওয়া প্রত্যেকবার
কুয়াশাঘোর 

চুপ করে যাও শব্দ শোনো
নীরব তারা ঘনিয়ে উঠুক
অলক্ষ্যজল মেঘলাপলক
ভিজিয়ে যাচ্ছে শব্দনিলীন
আবছায়া ঘুম…

কেমন যেন অলৌকিকে
স্কার্ফে বোনা রৌদ্রসজল
কি যেন কি খুঁজছো তুমি
বনের পথে ছড়িয়ে যাচ্ছে
নির্জনতা

কিছু না

প্রত্যেকটা “কিছু না”-র প্রান্তে
একটা মৌমাছি এসে বসে
এঁকে দিচ্ছে প্রান্তসীমা
সূর্য ফাঁকি দিয়ে যাচ্ছে চাঁদকে
চাঁদ ফাঁকি দিয়ে যাচ্ছে মেঘকে
মেঘ ঢেকে দিচ্ছে পাহাড়কে
আমার কাছে স্বপ্ন মানে 
একটা নির্জন ক্যাফেটেরিয়া 
হাত, পা, পোশাকের কিছু ক্লোজ আপ
আর কানের পাশ থেকে 
ব্লার হতে থাকা 
অপ্রাসঙ্গিক নিহিতার্থগুলো
খুব করে প্রাসঙ্গিক হয়ে ওঠে
কাঠের দেয়াল ছয়লাপ করে
ঘনিয়ে ওঠে লতাগাছ
পার্থিব আলাপচারিতাসমূহ
কখন যেন নীরব ও অপার্থিব হয়ে ওঠে
নির্দেশক হারিয়ে যায় বলে
শুটিং স্পট পড়ে থাকে শুনশান
বেকারির ভেতর থেকে কেক আর রুটির গন্ধ
একটা সুগার কিউবের প্রান্তে একটা 
মৌমাছি এসে বসেছে 
তুমি বলছো “কিছু না”