মনিরুজ্জামান মিন্টু-র কবিতা

Spread This
Moniruzzaman Mintu

মনিরুজ্জামান মিন্টু

ঘুম 
কিছু কিছু সান্নিধ্য বুকের ভিতর লুকিয়ে থাকে
আরও কিছু সান্নিধ্য আঙুলের তৃষ্ণায়
প্রায়শ মাতাল হয়ে ওঠে।
নীলবর্ণ আকাশ আর মেঘকালো অতিথি
এইবার কিছুক্ষণ থাকো
নবান্নে ওড়ানো ধানের শীতল হাওয়া
পৃষ্ঠার পর পৃষ্ঠা দুঃখ বুনে বুনে
এই বর্ষায় পাঠশালা বিরতি দিয়ে
পার হতে চায় নদীর সাঁকো …। 

দিনভর উপোস দুটি চোখে 
একটি রৌদ্র জড়ানো শালিক অনাবৃত পৌষ দেখে
আগুনের শোকে পেরিয়ে যাচ্ছে রোদের শহর। 

প্রার্থনার শহর 
শহরের সাদা দেয়ালে চিত্রকর আঁকে রোদের আঁচড়
আগুনের পাশে ঘর বাড়ি রেখে
পাখি বন্দনায়, মুঠোভর্তি নুড়ি কুড়িয়ে কুড়িয়ে
নুয়ে থাকে অলংকৃত ভালোবাসার প্রার্থনায়।

এই বৃষ্টিপ্রবণ মেঘের আনাগোনায়
অনাদিকাল রোদে রঞ্জিত যে কিশোর
প্রত্যাশায় দাঁড়িয়ে থাকে মোহময় বন্ধনের পতাকা উড়িয়ে
তার কাছে কেউ একজন আসবে নিশ্চয়ই। 

ঠিকানা 
দোলন চাঁপা ফুল … দোলন চাঁপা নামে নীল খামে
পত্র আসে শরৎ বিকেলে
কাশফুল ঘ্রাণে রৌদ্র ভেসে যায়
দীঘির জল পেরিয়ে নদীর ঢেউয়ের পালে
বৃষ্টিভেজা এক একটা দিন
এক একটা রাত …
যাত্রী নীড়ে কখনো হারানো মুখ সন্ধানে 
প্রতিউত্তরে পত্র লিখি অন্তহীন সাঁকোর উপর কোন এক নতুন ভোরে
ঠিকানাবিহীন ভালোবাসার উড়োচিঠিতে …।