সব্যসাচী ঘোষ-এর কবিতা

Spread This

সব্যসাচী ঘোষ

মহাপ্রস্থানের দিকে
 
রাস্তার পাশে হাসপাতালের দেওয়াল
দেওয়ালের পাশে তার  
সেখানে ঝোলে গেঞ্জি  
গেঞ্জির পাশে লুঙ্গি 
লুঙ্গির পাশে ছোপ ছোপ নাইটি 
নাইটির পাশে নবজাতকের ছয়ষষ্ঠীর জামা
ঝুলে থাকা পরিবার হাসপাতালের 
দিকে পিঠ করে থাকে 
ওদিক থেকে শুশ্রূষা আর 
পশ্চিমা বাতাস দুইই আসে
সন্ধ্যার পর থান কাপড়ের শক্তগিঁঠে
যেটুকু রাত্রি সেখানে ঢুকে পড়ে ওরা
সাইকেলের ক্যারিয়ারে উঠে প্যাডেল ঘোরায় 
ক্রমশ হাসপাতাল যেন দ্বাদশীর চাঁদ   
মহাপ্রস্থানের দিকে সেই সাইকেলের যাওয়া   
 
  
চায়ের ফাঁদ       
 
ভোরের দিকটায় চাঁদ নয় ফাঁদ আসে   
ধীর আর দ্রুততার মাঝামাঝি কোন 
গতিতে কচি ছাগলের গন্ধের ভেতর 
রক্তের কালচে দাগ মিশে যায়
লোহার গারদ আর কুয়াশার ভোর
চা গাছের ঘেরাটোপে নরম আলো 
সকালের মত প্রসব হয়ে নামে
তীব্র নখ দাঁত হুলুস্থুল ছটফট  
ক্রমশ বেদনার সঙ্গে গান মিশে  
বিকট চিতাবাঘের গর্জন স্থিতধী হয় 
সেলফির ভেতর আটকে মানুষ
গারদের ভেতর চিতাবাঘ দেখে