নেহাল আহমেদ নেহাল-এর কবিতা

Spread This

নেহাল আহমেদ নেহাল

১। কিছু দৃশ্য এ রকম হয়

ঝরাপাতারা কেহ কেহ পূর্ণ যৌবনেও ভুলে যায় তাদের রঙ ছড়ানোর কথা। কিংবা ঝরে যায় অনেকক্ষণ শূন্যে দোল খেতে খেতে। ভালো না লাগলেও এই সব দৃশ্যগুলি আমি অনেকক্ষণ তাকিয়ে দেখি। তুমি তখন উজ্জ্বল জল রংয়ে তোমার অহংকার আঁকছ কিংবা বিকেলের আলোকে অস্বীকার করছো। এ রকম বসন্ত ভেবে আমি খুঁজেছি জনান্তিকে। তুমি আছ তুমি নেই। কিছু এ রকম হয়। কবিতায় আমরা মানুষের হৃদয় মুদ্রণ করি।

 

২। এই গ্রামের সাথে আমার সম্পর্ক ছিল

এই গ্রামে হঠাৎ করেই এক প্রেমের কবিতার দেখা পেয়েছিলাম। পথের মধ্যে কয়েকজন অন্ধ তাদের হাতের ইশারায় আমাকে বারণ করেছিল এই গ্রামে আমাকে অবস্থান করতে। বুঝতে পারি নাই এই প্রেম আমাকে নিয়ে যাবে নিঃসঙ্গ চিলের কাছে। তখন থেকেই নিজের সাথে বসবাস করছি।
তখনো একটি ব্যালকনিতে ঝুলছিল আমাদের স্মৃতিগুলো। যদিও তুমি আমাকে এমন কোনও কথা বলোনি যার ছায়া থেকে আমার হৃদয়ে প্রেমের জন্ম হতে পারে।

 

৩। খুব অপরিচিত লাগে এই নাম

আজকাল চোখে আর অন্য কোনো স্বপ্নই জাগে না। আজকাল খুব অপরিচিত লাগে তোমার এই নাম কে দিয়েছিল তোমার এই নাম, বাবা মা কিংবা কোন প্রেমিক যে এখনো তোমাকে বলতে পারেনি তার ভালোবাসার কথা।
তোমরা যারা আমার অসংলগ্ন কথাগুলোকে কবিতা ভাবো
আমার বেশ ভালো লাগে
আমার হঠাৎ এই হারিয়ে যাওয়াকে যারা তীর্থ যাত্রা বলো
আমার বেশ ভালো লাগে
আমার অনন্ত শূন্য হৃদয় যখন হাহাকার করে ওঠে তোমরা যারা তাকে গান বলো
আমার বেশ ভালো লাগে
তোমার না দেখা ছবিটা যখন আমি কিছুতেই আঁকতে পারিনা
আমার অক্ষম হৃদয় কিছুতেই রঙ খুঁজে পায়না
তোমরা যখন তাকে চিত্রকলা বলো
আমার ভালো লাগেনা
আমার ভালো লাগেনা
সত্যি আমার ভীষণ রাগ হয়
ওরা কেন বোঝেনা আমি তোমাকেই খুঁজি
তোমাকেই ভালোবাসি
তোমাকেই ভালোবাসি।